Rana Plaza built on land grabbed from Rabindranath Sarkar

Rabindranath Sarkar

“Journalist brother. You are a Hindu, I am a Hindu. Please don’t do any more harm to me. You know, how Hindus have to live in this country. Rana Plaza collapsed on top of my house and office. Four of my staff and three of my house help died. After the accident, goods were looted from my house. I can’t even go into my own house.”

“To tell the truth, I’ll have to depart this life this time around”

  • Rabindranath Sarkar was the victim of land-grabbing by Sohel Rana.
  • It was on the land that originally belonged to Rabindranath Sarkar that Rana Plaza was built.

Amitash Pal reporting from Savar. Translated from Bengali for AlalODulal.org by Tibra Ali.

“I protested when they grabbed the land from me. But as a result I had to quit Savar. For seven months I couldn’t come back. I stayed in various hotels or with relatives in Dhaka. To come back here I had to resort to pleading with various people. I don’t want to talk about this anymore. To tell the truth, they will make me depart this life this time around.”

These words were being spoken by Rabindranath Sarkar. It was land illegally grabbed from him on which Sohel Rana, joint convenor of Savar unit of Juba League and the former general secretary of Savar Chhatra League, built his multi-storied “Rana Plaza”. Mr. Sarkar’s business, “S. S. Sarkar Brothers” (address: Kashrubagan, 39B Majidpur), is right next the wreckage of Rana Plaza. It was there on Saturday afternoon that this reporter spoke to him. During the interview his face was stricken with fear. He was reluctant to say anything. He was trying to avoid the topics of Sohel Rana or land-grabbing whenever they came up.

At some point he started to say, “Journalist brother. You are a Hindu, I am a Hindu. Please don’t do any more harm to me. You know, how Hindus have to live in this country. Rana Plaza collapsed on top of my house and office. Four of my staff and three of my house help died. After the accident, goods were looted from my house. I can’t even go into my own house. The rescuers have sealed off my house. The members of my family are all staying with relatives in various places.”

But Bangladesh has not yet degenerated into complete anarchy. And that is why Sohel Rana is a fugitive today. And it is he who is being hunted by the police – in answer to this line of reasoning Mr. Sarkar replied, “He may be fugitive today, but you will see that he will come out shortly. And when he does you guys won’t be here. You won’t have to pay. Only I will have to pay.”

Continuing this line of conversation he says at one point, “In 1989, I bought 126 decimals of the land of the line numbers 15, 16, 17 and 23 of Chhoto Bolimeher Moujar, right next to the bus-stand. The original owners of the land were Mustafa Mohsin Mintu, who is a leader of Gono Forum, his brother and his brother’s wife. Of these lines a few were bought by Sohel Rana’s father Abdul Khalek. After careful measurements, I put a boundary around my land. In 2001 Abdul Khalek’s son, Sohel Rana, knocked down that wall and took over 27 percent of my land. I even filed a case when that happened. His father used to be involved with the BNP. It was after this that I had to leave Savar. For about six-seven months I had to stay at various places. I couldn’t return to Savar. I used to stay at hotels in Dhaka. Also, I had to stay with different relatives. My business suffered severely during that time. To return to Savar I had to plead with many of the local people. But I was forced let go of the land that had been grabbed. There is no one in Savar who doesn’t know of this incident. You can get the story from anyone here. You don’t have to hear it from me.”

Rabindranath Sarkar says, “Later they started to build a high-rise there; I noticed that the quality of the builders’ work was very poor. I even filed a complaint about this with Savar city council and RAJUK (Capital Development Authority). The people from RAJUK came and halted the work for a couple of days. But later I saw that the work has resumed. Rana is a bigger shot than many of the big leaders, too say nothing of RAJUK.”

Mr. Sarker further says, “My house has been severely damaged as a result of Rana Plaza falling onto it. I had to leave home quickly. My business is right next it. That too has been damaged. Goods have been damaged in the warehouse. Cracks have appeared in the building that I live in. It is no longer livable. When I went home after the accident I found that all my belongings have been looted.”

***

সত্য কথা বললে এবার আমাকে পৃথিবীছাড়া হতে হবে

* রানার দখলবাজির শিকার রবীন্দ্রনাথ সরকার
* তাঁর জায়গায়ই গড়ে তোলা হয় রানা প্লাজা অমিতোষ পাল, সাভার থেকে

‘ওরা যখন আমার জায়গা দখল করে তখন প্রতিবাদ করেছিলাম। আর সেটা করতে গিয়ে আমাকে সাভারছাড়া হতে হয়েছিল। সাত মাস সাভারে আসতে পারিনি। ঢাকায় হোটেলে বা আত্মীয়স্বজনের বাসায় বাসায় থাকতে হয়েছে। লোক ধরাধরি করে সাভারে ফিরতে হয়েছে। এসব নিয়ে এখন আর কোনো কথা বলতে চাই না। সত্য কথা বললে এবার ওরা আমাকে পৃথিবীছাড়া করে ছাড়বে।’

কথাগুলো বলছিলেন রবীন্দ্রনাথ সরকার। তাঁর জায়গা দখল করেই বহুতল ‘রানা প্লাজা’ গড়ে তোলেন সাভার পৌর যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ও সাভার পৌর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সোহেল রানা। রানা প্লাজার ধ্বংসস্তূপের পাশেই (খসরুবাগান, ৩৯বি মজিদপুর) রবীন্দ্রনাথের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান এস এস সরকার ব্রাদার্স। গতকাল শনিবার দুপুরে সেখানে তাঁর সঙ্গে কথা হয় এ প্রতিবেদকের। কথা বলার সময় তাঁর চোখেমুখে ছিল আতঙ্কের ছাপ। কোনো কথাই তিনি বলতে চাচ্ছিলেন না। দখল ও সোহেল রানার প্রসঙ্গ তুললেই তিনি এড়িয়ে যাচ্ছিলেন।

এক পর্যায়ে রবীন্দ্রনাথ বলতে থাকেন, ‘সাংবাদিক দাদা, আপনিও হিন্দু মানুষ। আমিও হিন্দু মানুষ। আপনি আমার আর কোনো ক্ষতি করবেন না। আপনি তো জানেন, এই দেশে হিন্দুদের কিভাবে বেঁচে থাকতে হয়। রানা প্লাজা ধসে আমার বাড়ি ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের ওপর এসে পড়ে। আমার চারজন স্টাফ ও তিনজন কাজের লোক মারা গেছে। দুর্ঘটনার পর আমার বাড়ির মালামাল লুট হয়ে গেছে। নিজের বাড়িতেই এখন আমি ঢুকতে পারছি না। উদ্ধারকারীরা আমার বাড়ি সিল করে রেখেছে। আমার পরিবারের লোকজন বিভিন্ন জায়গায় আত্মীয়স্বজনের বাড়িতে থাকছে।’

এখনো বাংলাদেশটা মগের মুল্লুক হয়ে যায়নি। সোহেল রানাই তো আজ পলাতক। তাকেই তো পুলিশ খুঁজছে- এ কথার পরিপ্রেক্ষিতে রবীন্দ্রনাথ বলেন, ‘ও এখন পলাতক থাকলেও দেখা যাবে, কিছু দিন পরই বেরিয়ে এসেছে। তখন আপনারা থাকবেন না। আপনাদের সমস্যাও হবে না। সমস্যা হবে আমার।’

এভাবে কথা বলতে বলতে এক পর্যায়ে তিনি বলেন, ‘১৯৮৯ সালে বাসস্টান্ডসংলগ্ন ছোট বলিমেহের মৌজার ১৫, ১৬, ১৭ ও ২৩ নম্বর দাগের ১২৬ শতাংশ জমি কিনি। জমির মালিক ছিলেন গণফোরাম নেতা মোস্তফা মহসীন মন্টু, তাঁর ভাই ও ভাইয়ের স্ত্রী। এসব দাগের কিছু অংশের জমি কিনে সোহেল রানার বাবা আবদুল খালেক। আমার জমি মাপজোক করে সীমানাপ্রাচীর দিয়ে ঘিরে দেই। ২০০১ সালের দিকে আবদুল খালেকের ছেলে সোহেল রানা আমার সীমানা প্রাচীর ভেঙে ২৭ শতাংশ জমি দখল করে নেয়। ওই ঘটনায় একটা মামলা করি। ওর বাবা তখন বিএনপি করতেন। এর পরই আমাকে সাভারছাড়া হতে হয়। ছয়-সাত মাস বিভিন্ন জায়গায় কাটাতে হয়েছে। সাভারে আসতে পারিনি। ঢাকায় হোটেলে হোটেলে কাটাতে হয়েছে। আত্মীয়স্বজনের বাসায় থাকতে হয়েছে। ওই সময়ে ব্যবসার চরম ক্ষতি হয়েছে। স্থানীয় বিভিন্ন ব্যক্তিকে ধরে সাভারে ফিরি। কিন্তু দখল হওয়া জায়গাটা ছেড়ে দিতে বাধ্য হই। আমার ঘটনা সাভারে এমন কোনো লোক নেই যে জানে না। যে কাউকে জিজ্ঞাসা করলেই পেয়ে যাবেন। আমার কাছে শুনতে হবে না।’

রবীন্দ্রনাথ সরকার বলেন, ‘পরে ওই জায়গায় ভবন নির্মাণ শুরু হয়; দেখলাম ভবনের নির্মাণকাজ খুবই খারাপ। এ ব্যাপারে সাভার পৌরসভা ও রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) কাছে অভিযোগ করেছিলাম। রাজউকের লোক এসে দুদিন কাজ বন্ধ রেখেছিল। পরে দেখি, আবার কাজ শুরু হয়ে গেছে। ওর (রানা) সামনে বড় বড় নেতারাও পাত্তা পায় না। রাজউক তো দূরের কথা।’

রবীন্দ্রনাথ বলেন, ‘আমার বাড়ির ওপর রানা প্লাজা ধসে পড়ায় আমার বাড়িও মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। দ্রুত বাড়ি থেকে বেরিয়ে পড়ি। পাশেই আমার ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান। সেটাও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। গুদামের মালামালও নষ্ট হয়ে গেছে। আমার বসতবাড়িতেও ফাটল ধরেছে। ওটাতে আর বসবাস করা যাবে না। দুর্ঘটনার পর বাড়িতে গিয়ে দেখি, সব মালামাল লুট হয়ে গেছে।’

http://www.kalerkantho.com/?view=details&type=gold&data=news&pub_no=1226&cat_id=1&menu_id=13&news_type_id=1&index=9&archiev=yes&arch_date=28-04-2013

7 thoughts on “Rana Plaza built on land grabbed from Rabindranath Sarkar

  1. Not necessarily someone has to be a Hindu or from minority commnot rareunity land grabbing by powerful elements are rare in our country. Statistics tell Awami League leaders have been the greatest beneficiary of this exercise. Goverment machinery are always glad to help the powerfuls. I know many Muslims who had the same experience. Their faults were they were weak and had no special connection with the powerfuls.

  2. Poor guy. Justice and restoration to him.

    I got confused with the percentages. did the translater mean decimals of land?

    the production of sohel rana, brac bank and the Awami leagues dealings with him need to be investigated.

    • Agree w/ fugstar, except with one addition: Awami League and BNP dealings with him. Look at the years of his rise, and you’ll see that the Sohel Rana’s come out on top in every regime. The core problem is gangster capitalism married to thug politics, in which both AL and BNP participate equally.

  3. the absence of a good governance has been exposed… like Rana, there are thousands more who take the bold move to exploit people by illegal ways and this is mainly happening due to the absence of adequate law enforcers or because of corruption. Taking law into their own hands by bribing, lobbying or blackmailing etc. the criminals exploit own country as a hunting ground without any obstacles. These AL and BNP terrorists and criminal gangs must be brought to justice or the chaos won’t leave this country.

  4. Pingback: Death Mill | Foreign Policy | Ramy Abdeljabbar's Palestine and World News

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s