Ali Riaz: Do you remember that Savar “accident”?

© Taslima Akhter / TIME Magazine

© Taslima Akhter / TIME Magazine

Do you remember that Savar “accident”?
by Ali Riaz, translated by Unnashic for AlalODulal.org

Rana Plaza in Savar collapsed on 24 April, today is 13 May. The rescue operation has also finished, after 20 days. 1127 corpses have been found, over 1000 injured and none of us know how many are missing. 

Those who have lost their family members know how painful this is. Those who are still waiting for the dead bodies of their loved ones understand the depth of the darkness between hope and despair.

The collective efforts of the general public rescued thousands of people; people came to rescue forgetting the difference between day and night, ignoring all their duties.

While participating in rescue efforts Izazuddin uddin Chowdhury Kaykobad was burnt to death; Omar Faruk Babu after loosing his mental equilibrium died under suspicious circumstances.

Incessant news reports flooded world media. Many around the world, even those with no connection to Bangladesh, have come forward to put pressure on different buyer-companies so that urgent actions are taken to ensure a just wage for the workers.

Yet, still now the BGMEA has not been able to produce a complete list of workers who were working on that day in the five factories. So far, in two attempts what is given is not a list but mere numbers. Why cannot the peak-body of owners of the industry be sued for its failure to produce a list, when everyone else can work day and night for the good of our country, for a fair wage for the workers and to establish a union for them?

Although it did not take long for cunning leaders to close the factories. There is no urgency in paying the wages due, but the workers were easily told ‘you won’t be paid if you don’t work’.

Already 20 days have passed, we were busy with other issues, many incidents will take place in future – maybe one day we would say – ” do you remember that Savar ‘accident'”?

সাভারের রানা প্লাজা ধ্বসে পড়ার ঘটনা ঘটেছে ২৪ এপ্রিল, আজ ১৩ মে।

কুড়ি দিন উদ্ধার অভিযান চালানোর পর সেই অভিযানও শেষ হয়েছে। মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে ১১২৭টি, আহত হয়েছেন হাজারের বেশি। নিখোঁজের সংখ্যা আমরা কেউ জানিনা।

যারা পরিবার পরিজন হারিয়েছেন তাঁরা জানেন এর বেদনা কি। যারা এখনও তাঁদের প্রিয়জনের লাশের আশায় বসে আছেন তাঁরা জানেন আশা-নিরাশার মাঝখানের অন্ধকার কত গাঢ়।

সাধারণ মানুষের সম্মিলিত উদযোগের ফলে উদ্ধার হয়েছেন হাজারো মানুষ; দিন-রাতের পার্থক্য ভুলে, নিজেদের জীবনের সব কাজকে ঠেলে দিয়ে মানুষ এগিয়ে এসেছিলেন।

উদ্ধার অভিযানে অংশ নিয়ে অগ্নিদগ্ধ হয়ে প্রাণ হারিয়েছেন ইজাজ উদ্দিন চৌধুরী কায়কোবাদ, মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ওমর ফারুক বাবু রহস্যজনকভাবে মৃত্যু বরণ করেছেন।

সারা পৃথিবীর গণমাধ্যমে খবরের পর খবর। পৃথিবীর বিভিন্ন মানুষ, যাঁদের সঙ্গে বাংলাদেশের কোনো যোগাযোগ নেই তারাও, এগিয়ে এসেছেন বিভিন্ন ক্রেতা কোম্পানির ওপর চাপ সৃষ্টি করতে যেন শ্রমিকদের ন্যায্য মজুরির নিশ্চয়তা বিধান করার জন্যে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হয়।

অথচ বিজিএমইএ এখন পর্যন্ত একটা পূর্নাঙ্গ তালিকা দিতে পারেনি যে ঐদিন এই পাঁচটি কারখানায় কতজন মানুষ কাজ করছিলেন। এই পর্যন্ত দু’দফায় যা বলা হয়েছে তা যে কেবল ভুল তাই নয়, সেগুলোও কেবল সংখ্যা, তালিকা নয়। দেশের প্রয়োজনে, শ্রমিকদের ন্যায্য মজুরি পাওয়ার প্রশ্নে, তাঁদের ইউনিয়ন করার অধিকারের প্রশ্নে সবাই যখন দিনরাত কাজ করতে পারেন তখন এই শিল্পের মালিকদের সংগঠন কেন একটা তালিকা প্রকাশ করতে ব্যর্থ হওয়া সত্ত্বেও তাঁদের ব্যাপারে কোনো আইনগত ব্যবস্থার সুযোগ নেই?

অথচ ত্বরিৎকর্মা নেতারা ফ্যাক্টরি বন্ধের সিদ্ধান্ত নিতে দেরি করেন নি মোটেই। শ্রমিকদের পাওনা বেতন দেয়ার কাজে ব্যস্ততা নেই, কিন্ত ‘কাজ না করলে বেতন নেই’ শ্রমিকদের সে কথা সহজেই জানিয়ে দেয়া হয়েছে। আহতদের চিকিৎসা ও সাহায্যের ব্যাপারে জাতীয় পর্যায়ে যে উদযোগ তাকে অপ্রতুল বললেও বেশি বলা হবে।

ইতিমধ্যে কুড়ি দিন গেছে, অন্য বিষয় নিয়ে আমাদের ব্যস্ততা ছিল, আগামীতে আরো অনেক ঘটনা ঘটবে – এক সময় হয়তো আমরা বলবো- “মনে পড়ে সাভারের সেই ‘দুর্ঘটনার’ কথা?”

Ali Riaz is Professor and the Chair of the Department of Politics and Government at Illinois State University.

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s