রাফিফ জিয়াদাহ্‌, ফিলিস্তিনি কবি – Rafeef Ziadah, a Palestinian refugee, poet and activist

রাফিফ জিয়াদাহ্‌-র পাঠঃ (As read by Rafeef Ziadah:)
https://www.youtube.com/watch?v=m2vFJE93LTI

ক্রোধের প্রচ্ছায়া
রাফিফ জিয়াদাহ্‌, ফিলিস্তিনি কবি, অ্যাক্টিভিস্ট

Rafeef Ziadah, a Palestinian refugee, poet and activist

(কোন একটা প্রতিবাদ সমাবেশে অংশ নেয়া এই নারীকে এক ইসরায়েলী সৈন্য লাথি মেরে বলে, তোমার পেট থেকে টেররিস্ট বাচ্চা পয়দা হবার আগে তোমার ধর্ষিত হওয়া উচিৎ…ঐ তরুণ সৈন্যটির উদ্দেশ্যে লেখা এই পংক্তিমালা)

(These stanzas were written for a young Israeli soldier, who had kicked a Palestinian women in the gut, during a protest, abusing her, ‘you should be raped before a terrorist is born from your tummy’)

ওরা আমার ভাষাটাকেও দখল করে নেবার আগে
আমাকে আমার আরব ভাষায় কথা বলতে দাও।
ওরা আমার মা’র স্মৃতিটুকুও দখলে নেবার আগে
আমাকে আমার মাতৃভাষায় কথা বলতে দাও।
আমি একজন অশ্বেতাঙ্গ আরব নারী।
আর আমরা উদ্ভাসিত ক্রোধের সকল প্রচ্ছায়াতে।
আমার দাদা কেবল চেয়েছিলেন ভোরবেলা ঘুম ভেঙে উঠতে
আর চেয়ে চেয়ে দেখতে যে আমার দাদী হাঁটু মুড়ে প্রার্থনা করছেন, জাফা আর হাইফার মাঝখানে লুকোনো কোন এক গ্রামে
আমার মা জন্মেছিলেন একটা জলপাই গাছের নীচে
যে জায়গাটা, ওরা বলে, এখন আর আমার নয়
কিন্তু আমি ঠিক-ই বাধা-বিপত্তিগুলো পেরুবো, ওদের চেকপোস্টগুলো,
আর ওদের ঐ বিভেদের দেয়াল, আর ফিরে যাবো আমার স্বদেশে
আমি একজন অশ্বেতাঙ্গ আরব নারী, আর আমরা উদ্ভাসিত ক্রোধের সকল প্রচ্ছায়াতে।
আর তোমরা কি কাল আমার বোনটার চিৎকার শুনেছো
যখন ও চেকপোস্টে প্রসব করছিলো
আর ওর দু’পায়ের ফাঁকে তাকিয়ে ছিলো ইসরায়েলী সৈন্যরা
তাদের আগামী দিনের জনমিতিক হুমকিটাকে দেখবে বলে
ও বাচ্চা মেয়েটাকে ডাকছিলো “জেনিন” নামে।
আর যখন ওরা ওর সেলে টিয়ারগ্যাস ছুঁড়ছিলো
তোমরা কি গরাদের ওপার থেকে আমনি মোনার
চিৎকার শুনেছো,“আমরা ফিলিস্তিনে ফিরে আসছি!”
আমি একজন অশ্বেতাঙ্গ আরব নারী, আর আমরা উদ্ভাসিত ক্রোধের সকল প্রচ্ছায়াতে।
অথচ তুমি আমাকে বলো যে, আমার পেট থেকে কেবল
তোমার জন্যে বেরোবে তোমার আগামী দিনের টেররিস্ট
দাড়ি ঝুলানো, বন্দুক উঁচানো, মাথায় তোয়ালে প্যাঁচানো, মরু-নিগ্রো
তুমি আমাকে বলো যে, আমি নাকি আমার বাচ্চাদেরকে মরতে পাঠাই
কিন্তু ওগুলো তো তোমার কপ্টার, তোমার এফসিক্সটিন আমার আকাশে
আর এসো, এই টেররিজ্‌ম ব্যাপারটা নিয়ে একটু কথা বলা যাক
আলেন্দে আর লুমুম্বাকে না সিআইএ-ই মেরেছিলো
আর ওসামাকেই-বা প্রথমতঃ তৈরি করলো কারা?
সাদা হুডে মাথা ঢেকে আর সাদা পোশাক পরে যারা
কালো মানুষদেরকে লিঞ্চিং করছিলো, আমার পূর্বপুরুষেরা তো তাদের সাথে ক্লাউনের মতো দৌড়ে বেড়ায়নি
আমি একজন অশ্বেতাঙ্গ আরব নারী, আর আমরা উদ্ভাসিত ক্রোধের সকল প্রচ্ছায়াতে।
“তো কে ওই বাদামী-রঙা নারী যে জমায়েতে চিৎকার করছিলো?”
স্যরি, আমার কি চিৎকার করার কথা নয়?
আমি ভুলে গেছি, তোমার প্রাত্যহিক ওরিয়েন্টালিস্ট স্বপ্ন হয়ে উঠতে
জিনি ইন আ বট্‌ল, বেলি ডান্সার, হারেমের রমণী, মৃদুভাষী আরব নারী,
জ্বি হুজুর, না হুজুর।
তোমার এফসিক্সটিনগুলো থেকে আমাদের জন্য বর্ষিত
পিনাট বাটার স্যান্ডউইচগুলোর জন্য শুকরিয়া
হ্যাঁ আমার বাচ্চাদের হত্যা করার জন্য আর তাকে “কোল্যাটারাল ড্যামেজ”
তকমা সাঁটার জন্য আমার মুক্তিদাতারা হাজির
আমি একজন অশ্বেতাঙ্গ আরব নারী, আর আমরা উদ্ভাসিত ক্রোধের সকল প্রচ্ছায়াতে।
তাই তোমাকে বলি শোনো,আমার পেট থেকে তোমার জন্যে
বেরুবে কেবল তোমার আগামী দিনের বিদ্রোহী
তার একটা হাতে থাকবে পাথরের টুকরো আর অন্যটাতে ফিলিস্তিনের পতাকা
আমি একজন অশ্বেতাঙ্গ আরব নারী
হুঁশিয়ার! হুঁশিয়ার আমার ক্রোধ থেকে…

মূল ইংরেজির লিঙ্কঃ (Original texts in English can be found at:)
http://www.syriansinbritain.com/news/tag/rafeef-ziadah-shades-of-anger-lyrics

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s